রানারের হাত ধরে বাংলাদেশে এলো কেটিএম মোটরসাইকেল

৯০

অস্ট্রিয়ার প্রিমিয়াম মোটরসাইকেল ব্যান্ড কেটিএম-এর বাইক এখন থেকে বাংলাদেশের বাজারে পাওয়া যাবে। দেশে এই বাইক বাজারজাত করবে রানার অটোমোবাইলস। শুরুতে কেটিএম ডিউক ১২৫ এবং কেটিএম আরসি মডেল দুইটি কিনতে পাওয়া যাবে।

২৫ জানুয়ারি সোমবার ময়মনসিংহের ভালুকায় রানার অটোমোবাইলস লিমিটেডের কারখানায় কেটিএম এর নতুন দুই মডেল বিক্রির ঘোষণা দেয়া হয়।

এসময় রানার অটোমোবাইলস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা রিয়াজুল চৌধুরী বলেন, বাংলাদেশে কেটিএম ডিউক এবং কেটিএম আরসি মডেল দুইটির যাত্রা শুরু করতে পেরে আমরা আনন্দিত। আগামীতে আমরা কেটিএম আরো বেশ কিছু মডেল নিয়ে আসব।

রানার অটোমোবাইলস লিমিটেডের পরিচালক সাকিফ খান বলেন, তরুণদের মাঝে জনপ্রিয় বাইক কেটিএম। আমরা এই বাইক বাংলাদেশে আনতে পেরে আনন্দিত।

তিনি জানান, বিশ্বজুড়ে ১২৫ সিসির সেগমেন্টে কেটিএম ডিউক ১২৫ জনপ্রিয় বাইক। বাইকটির বিশেষত্ব হচ্ছে, এর গতি, স্টাইলিশ ডিজাইন এবং অত্যাধুনিক প্রযুক্তির সংমিশ্রণ।

কেটিএম ডিউকে রয়েছে লিকুইড কুলড, ফুয়েল ইনজেকটেড ইঞ্জিন। যা ৯২৫০ আরপিএমে ১৪.৫ হর্সপাওয়ার দেয়। ৮০০০ আরপিএমে ১২ নিউটন মিটার টর্ক উৎপাদন করতে পারে। এর অ্যালুমিনিয়াম সিলিন্ডারের ভেতরের দেয়ালে নিকাসিল কোটিং দেয়া হয়েছে। হালকা ওজনের আলাদা স্টিল ট্রেলিস কাঠামো রাইডিং কমফোর্ট দেবে। এতে ইউএসডি সাসপেনশন ব্যবহৃত হয়েছে।

বিশেষ বিশেষ ফিচার হিসেবে আছে, এবিএস, ডাবল ডিস্ক ব্রেক, টিএফটি ডিসপ্লে, ব্লুটুথ কানেকটিভিটি।

বাংলাদেশে দুইটি ভেরিয়েন্টে ভিন্ন ভিন্ন রঙে পাওয়া যাবে।

অন্যদিকে আরসি ১২৫ মোটোজিপি চ্যাম্পিয়নশিপে অংশ নেয়া কেটিএম ফ্যাক্টরি রেসিং টিমের আরসি ১৬ দিয়ে অনুপ্রাণিত। বাইকটিতে এবিএস ও এফআই ইঞ্জিন দেয়া হয়েছে। ইঞ্জিনের স্পেসিফিকেশন কেটিএম ডিউকের মতোই।

কেটিএম ডিউক হাইএন্ড ভেরিয়েন্টের দাম ৪ লাখ ৮০ হাজার টাকা। অন্য একটি ভার্সন পাওয়া যাবে

৩ লাখ ৫০ হাজার টাকা।

কেটিএম আরসি ১২৫ মডেলের দাম নির্ধারণ করা হয়েছে ৪ লাখ ৭০ হাজার টাকা।