কোভিড ভ্যাক্সিন বিষয়ক অসত্য তথ্য প্রকাশ নিষিদ্ধ করলো ফেসবুক

কোভিড ভ্যাক্সিন বিষয়ক অসত্য তথ্য প্রকাশ নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে সোশ্যাল মিডিয়া জায়ান্ট ফেসবুক। সোমবার ব্লগপোস্টে তারা জানায়, কোভিড-১৯ বিষয়ক নীতিমালা অনুযায়ী ফেসবুকে প্রকাশ করা কনটেন্টে যদি কোভিড-১৯ ভ্যাক্সিন বিষয়ক কোনো অসত্য তথ্য থাকে তাহলে সেই কনটেন্ট সরিয়ে ফেলা হবে।

ফেসবুকের কনটেন্ট মডারেটর গাই রোজেন বলেন, ‘কোভিড-১৯ নীতিমালা অনুযায়ী কোনো নির্দিষ্ট গ্রুপ, পেইজ বা অ্যাকাউন্ট থেকে প্রকাশ হওয়া কনটেন্টে ভুয়া তথ্য পাওয়া গেলে সেই কনটেন্ট সরিয়ে ফেলা হবে।’ ‘আগামী সপ্তাহ থেকে এই সিদ্ধান্ত কার্যকর করা হবে।’

ফেসবুকের বিভিন্ন গ্রুপে কোভিড ভ্যাক্সিন বিষয়ক কনটেন্টে অসত্য তথ্য প্রকাশ করা হয়। ফেসবুকের নতুন নীতিমালা অনুযায়ী যারা অসত্য তথ্য প্রকাশ করবেন তাদেরকে স্থায়ীভাবে ব্যান করা হবে। এই সিদ্ধান্ত ইনস্টাগ্রামের ক্ষেত্রেও কার্যকর করা হবে।

মহামারীর শুরুতে ফেসবুকে কোভিড-১৯ বিষয়ক কনটেন্টের ব্যাপারে নীতিমালা ঘোষণা করা হয়। ২০২০ সালের এপ্রিলে কোভিড-১৯ বিষয়ক কনটেন্টে অসত্য তথ্য পাওয়া গেলে সেটি সরিয়ে ফেলার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। ডিসেম্বর থেকে ব্যবহারকারীর কনটেন্টে অসত্য তথ্য পাওয়া গেলে সেটি সরিয়ে ফেলতে শুরু করে ফেসবুক। এসব তথ্যের মধ্যে রয়েছে ফেসমাস্ক পরলে কোভিড-১৯ মোকাবেলা করা সম্ভব নয়, ফাইভ-জি প্রযুক্তি করোনাভাইরাসের জন্য দায়ী।

কোভিড ভ্যাক্সিন বিষয়ক কনটেন্টে অসত্য তথ্য থাকলে সেই কনটেন্ট জোরদারভাবে সরিয়ে ফেলছে ফেসবুক। ব্যবহারকারীকে করা হচ্ছে ব্যান। কিন্তু ফেসবুকের নতুন নীতিমালা কার্যকর করা সত্ত্বেও কোভিড ভ্যাক্সিন বিষয়ক অসত্য তথ্য প্রকাশ আশঙ্কাজনকভাবে বেড়েই চলেছে। এই নীতিমালা কার্যকরের কারণে কয়েক মাস ধরেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রাম ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েছে।