অনলাইনে কেনাকাটায় থাকুন সতর্ক

13

অনলাইন ও সোশ্যাল মিডিয়ায়ও আকর্ষণীয় মূল্যে পহেলা বৈশাখের পোশাক বিক্রি করা হচ্ছে। ঈদের জন্যও অনেকে অনলাইনের ওপর আস্থা রাখেন। তবে অনলাইনে পোশাক কেনার ক্ষেত্রে কিছু বিষয়ে সতর্ক হওয়া উচিত।

বাজেট সম্পর্কে ভাবুন

অনলাইন ও সোশ্যাল মিডিয়ায় কোনো পোশাক কেনার আগে বাজেটের বিষয়টি ভেবে নেওয়া জরুরি। ফেসবুক গ্রুপে কোনো পোশাকের মূল্য ছাড় দেখলে হুট করে সেটি না কিনে গ্রুপের নিয়মকানুনগুলো একবার পড়ে নিন। কারণ মূল্যছাড়ের কথা বললেও অনেক সময় মোটা অঙ্কের ভ্যাটের কথা জানান না অনেক বিক্রেতা। তাই পোশাকটি কেনার জন্য কত টাকা ভ্যাট দিতে হবে সেটি আগে থেকে জেনে নিন।

ফেরতযোগ্য কি না জেনে নিন

অনেক সময় সোশ্যাল মিডিয়া বা অনলাইনে কোনো পোশাক পছন্দ হলেও সেটি হাতে পাওয়ার পর পছন্দ হয় না। সে অবস্থায় পোশাকটি বিক্রেতা ফেরত নেবেন কি না সে বিষয়ে জানা জরুরি। পোশাকটি কেনার আগে তাই বিক্রেতার সঙ্গে কথা বলে নেওয়া উচিত। বিষয়টি আগে স্পষ্ট করে না রাখলে নানা অপ্রীতিকর পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে হয়। বেশিরভাগ সময় বিক্রেতার কাছে পোশাক ফেরত দিতে গেলে তিনি নিতে চান না। তাই জেনেবুঝে তারপর অনলাইনে পোশাক কিনুন।

সাইটের নির্ভরযোগ্যতা যাচাই করুন

যে সাইট থেকে পোশাকটি কিনবেন সেটি নির্ভরযোগ্য কি না যাচাই করে নিন। অপরিচিত কোনো সাইট থেকে পোশাক কেনা বুদ্ধিমানের কাজ নয়। বিশেষ করে সোশ্যাল মিডিয়ায় অনির্ভরযোগ্য কারও কাছ থেকে পোশাক কিনবেন না। অনেক সময় হ্যাকাররা বিভিন্ন লিংকে পোশাকের আকর্ষণীয় মূল্যছাড় দেখানোর মাধ্যমে আপনার ডিভাইসে ম্যালওয়্যার ছড়িয়ে দিতে পারেন।

ভালো পোশাকের খোঁজ করুন

অনলাইনে ভুরি ভুরি পোশাক বিক্রির সাইট রয়েছে। বেশিরভাগ সাইটই নির্ভরযোগ্য নয়। কোনটি নির্ভরযোগ্য ও কোনটি নয় সেটি জানার জন্য একাধিক সাইট দেখে তুলনা করুন। কোন কোন সাইটের পোশাক ভালো এবং কোথায় প্রতারিত হওয়ার ঝুঁকি কম সেটি বিবেচনা করুন। ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপ বা ইনস্টাগ্রামে অনেকে আকর্ষণীয় মূল্যছাড়ের কথা বলে টোপ ফেলতে পারে। এগুলো থেকে দূরে থেকে ভালো সাইট থেকে পোশাক কিনুন।