অনুষ্ঠিত হলো এশিয়ান পেইন্টসের কালার নেক্সট-২০২২ এর উদ্বোধনী

198

এশিয়ান পেইন্টস বাংলাদেশের আয়োজনে শুরু হয়েছে কালার নেক্সট-২০২২। ৬ আগস্ট, ২০২২ তারিখে রাজধানীর হোটেল রেডিসন ব্লুতে আয়োজিত এক জমকালো অনুষ্ঠানের মাধ্যমে যাত্রা শুরু করে কালার নেক্সট -২০২২।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এশিয়ান পেইন্টস গ্লোবাল ইন্টারন্যাশনালের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা প্রজ্ঞান কুমার। আরও উপস্থিত ছিলেন প্রতিষ্ঠানটির আঞ্চলিক প্রধান শিরীষ রাও এবং বাংলাদেশের কান্ট্রি হেড বুধাদিত্য মুখার্জি। এছাড়া দেশের প্রখ্যাত স্থপতি, ইন্টেরিয়র ডিজানারসহ আরও অনেকেই উপস্থিত ছিলেন।

প্রজ্ঞান কুমার তাঁর সংক্ষিপ্ত ভাষণে বলেন, ‘এশিয়ান পেইন্টসের লক্ষ্য হল ভোক্তাদের সাথে এমনভাবে অংশীদার হওয়া যাতে, তারা পণ্য ও পেইন্টিং পরিষেবার সর্বোত্তম অভিজ্ঞতা পেতে পারে এবং তাদের বাড়ি সম্পর্কে নিজেদের উচ্চাকাঙ্ক্ষা এবং দৃষ্টিভঙ্গি সঠিকভাবে উপলব্ধি করতে সক্ষম হয়।’

কালার নেক্সট সম্পর্কে বলতে গিয়ে প্রজ্ঞান কুমার বলেন, ‘কালার নেক্সট হলো, এমন একটি প্রক্রিয়া যেখানে আপনি বর্তমান সামাজিক এবং সাংস্কৃতিক প্রেক্ষাপটে উদ্ভূত প্রবণতাগুলো উপলব্ধি করতে পারেন। সামাজিক এবং ব্যক্তিগতভাবে বর্তমান প্রবণতার প্রতি যেভাবে সাড়া দিই এবং সেই জায়গা থেকে আমরা যেভাবে নিজেদের জন্য কাঙ্ক্ষিত পণ্যগুলো (নিজেদের ঘর সাজানোর রঙ) গ্রহণ করি তার সামগ্রিক প্রক্রিয়া। কালার নেক্সট ২০২২ এর মাধ্যমে আমরা রঙ নির্বাচনের বিষয়ে ক্রমাগত পরিবর্তনগুলো নিয়ে কাজ করার চেষ্টা করছি এবং গ্রাহকদের জন্য একটি ইতিবাচক ও প্রাণবন্ত রঙের সমাহার হাজির করার চেষ্টা করছি।’

অনুষ্ঠানে দেশের উদীয়মান স্থপতি ও ইন্টেরিয়র ডিজাইনারদের জন্য ঘোষণা করা হয়, ‘মুড বোর্ড কনটেস্ট’ এর। এই প্রতিযোগিতার উদ্দেশ্য হলো-দেশীয় স্থপতি এবং ইন্টেরিয়র ডিজাইনাররা যেন বর্তমানে রঙ বাছাইয়ের ক্ষেত্রে প্রচলিত ৪টি ট্রেন্ড অনুসরণ করে নিজদের কর্মক্ষেত্রে সর্বোচ্চ সেবা দিতে পারেন। এই প্রতিযোগিতার প্রথম ৫ বিজয়ী থেকে হবে এশিয়ান পেইন্টস বাংলাদেশের তরফ থেকে ঘোষিত নির্দিষ্ট পুরস্কার।

এশিয়ান পেইন্টস ২০০৩ সাল থেকেই মানুষের জীবনযাত্রার উপর রঙ এবং এর বিভিন্ন প্রভাব নিয়ে নিরবচ্ছিন্ন গবেষণা করে যাচ্ছে। বিগত ১৯ বছরের আমাদের কালার মার্কেটিং টিম স্থাপত্য, শিল্প, ইন্টেরিয়র ডিজাইন, ফ্যাশন, সমাজবিজ্ঞান, গণমাধ্যম এবং এফএমসিজির মতো বিভিন্ন সৃজনশীল শাখার বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে কাজ করছে। যাতে ‘কালার নেক্সট’ এর মাধ্যমে ভবিষ্যতে কোন ধরনের রঙের বিষয়ে গ্রাহকের চাহিদা তৈরি হবে সেই ট্রেন্ডের একটি ব্যাপক পূর্বাভাসকে উপলব্ধি করতে পারে। অন্যান্য বছরের ন্যায় এ বছরও আমরা চারটি অনন্য ট্রেন্ড এবং কালার অব দ্যা ইয়ার চালু করেছি যা এই ৪টি মানবিক প্রবণতার সারমর্মকে সেরাভাবে উপস্থাপন করে।