ভোট দিলেন প্রধানমন্ত্রী

8

ঢাকা-১০ আসনের উপ-নির্বাচনে ভোট দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ শনিবার সকাল ৯টা ১০ মিনিটের দিকে রাজধানীর সিটি কলেজ কেন্দ্রে গিয়ে ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন প্রধানমন্ত্রী।

এই আসনের সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার ফজলে নূর তাপস ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশ নির্বাচনের অংশ নিতে গেল ডিসেম্বরে পদত্যাগ করলে আসনটি শূন্য হয়। ধানমন্ডি ও হাজারীবাগ থানা নিয়ে গঠিত ঢাকার আসনটিতে মোট ভোটার ৩ লাখ ১২ হাজার ২৮১ জন। ১১৭টি ভোটকেন্দ্রে ৭৭৬টি ভোটকক্ষে ভোটগ্রহণ করা হচ্ছে।

সকাল ৯টা থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএমে)। বিরতিহীনভাবে চলবে বিকেল ৫টা পর্যন্ত।

বিশ্বব্যাপী মহামারী আকার ধারণ করা নভেল করোনাভাইরাস আতঙ্কে সবধরনের জনসমাগম নিষিদ্ধ করা হলেও ঢাকার এই আসন ছাড়াও গাইবান্ধা-৩ ও বাগেরহাট-৪ আসনে চলছে উপনির্বাচন। করোনাভাইরাসের কারণে বাড়তি ব্যবস্থাপনা নিয়ে নির্বাচন অনুষ্ঠান চলছে বলে জানিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

রিটার্নিং কর্মকর্তা জি এম সাহতাবউদ্দিন বলেন, করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে সব ধরনের সচেতনতা ও সতর্কতামূলক ব্যবস্থার মধ্যে ইভিএমে ভোট চলছে। নির্বাচনী কর্মকর্তাদের সংক্রমণ এড়াতে হাত ধোয়া, মাস্ক পরার ব্যবস্থা রাখা হয়েছে বলে জানান তিনি।

এছাড়াও ভোটারদের জন্য কেন্দ্র-ভোটকক্ষভিত্তিক হ্যান্ড স্যানিটাইজার, টিস্যু ও অন্যান্য সামগ্রী রাখা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

এদিন সকাল ৯টায় ভোটগ্রহণ শুরু হলেও প্রথম এক ঘণ্টায় তেমন ভোটার উপস্থিতি চোখে পড়েনি।

ঢাকা-১০ আসনের উপনির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ছয়জন প্রার্থী। আওয়ামী লীগের প্রার্থী মো. শফিউল ইসলাম ‘নৌকা, বিএনপি প্রার্থী শেখ রবিউল আলম ‘ধানের শীর্ষ’, জাতীয় পার্টির হাজি মো. শাহজাহান ‘লাঙল’, বাংলাদেশ কংগ্রেসের মিজানুর রহমান চৌধুরী ‘ডাব’, বাংলাদেশ মুসলিম লীগের নবাব খাজা আলী হাসান আসকারী ‘হারিকেন’ ও প্রগতিশীল গণতান্ত্রিক দলের (পিডিপি) আব্দুর রহীম ‘বাঘ’ প্রতীক নিয়ে ভোটের মাঠে রয়েছেন।

অন্যদিকে গাইবান্ধা-৩ এবং বাগেরহাট-৪ আসনের দুই সংসদ সদস্যের মৃত্যুর কারণে আসন দুটি শূন্য ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। আজ একই দিনে এ দুটি আসনে উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। তবে এ দুই আসনে ব্যালট পেপারে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হচ্ছে।