hasina

গণস্বাস্থ্যের কিটের নমুনা নিল যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান সিডিসি

11

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ওষুধ প্রশাসনের মহাপরিচালক (ডিজি) আমাকে জানিয়েছেন, তারা আসতে পারবেন না। জানি না, আজকে তারা কেন আসতে পারলেন না। মন্ত্রীকেও (স্বাস্থ্যমন্ত্রী) আমরা তিন দিন আগে এই অনুষ্ঠানে আসার জন্য অনুরোধ জানিয়েছিলাম। উত্তর পাইনি। মন্ত্রী এখন অত্যন্ত ব্যস্ত মানুষ। হতেই পারে। কারণে-অকারণে অনেক ব্যস্ত আছেন। শুধু যুক্তরাষ্ট্রের সেন্টার ফর ডিজিজেস কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশনের (সিডিসি) প্রতিনিধি এসেছেন। আজকে উনাদেরকে দিয়ে দেব। বাকীদের যার যার অফিসে কাল আমরা পৌঁছে দেবো।

তিনি বলেন, আমাদের দুঃখ যে, আজকে আপনাদের (গণমাধ্যম) সামনে সবাইকে কিটের নমুনা হস্তান্তর করতে পারছি না। কালকে উনারা (ঔষধ প্রশাসন) এটা নিয়ে বসবেন বলেছেন। আশা করছি যাচাই-বাচাই শেষে আমাদের অনুমোদন দিবেন।

শনিবার সকালে গণস্বাস্থ্য নগর হাসপাতালের মেজর এটিএম হায়দার বীরোত্তম মিলনায়তনে এক অনুষ্ঠানে সিডিসির পক্ষে কিটের নুমনা গ্রহন করেন কন্সালটেন্ট কাজী মো. সাইফুল ইসলাম। বিজ্ঞানী বিজন কুমার শীলের নেতৃত্বে এই কাজে যুক্ত রয়েছেন নিহাদ আদনান, মোহাম্মদ রাঈদ জমির উদ্দিন ও ফিরোজ আহমেদ।

গণস্বাস্থ্য ফার্মাসিটিক্যালসের প্রধান বিজ্ঞানী বিজন কুমার শীল তার উদ্ধাবিত কিট সর্ম্পকে বলেন, অ্যান্টিজেন ও অ্যান্টিবডি দুটি পরীক্ষায় এ প্রক্রিয়ায় করা যাবে। এ কিট দিয়ে ফলস পজেটিভ বা ফলস নেগেটিভ আসে না। একটি কিট দিকে একটি টেস্ট করা যায়।

যখন কিটের নমুনা যাচাই-বাচাই হয়নি, ঔষধ প্রসাশনের কাছে কোনো আবেদন করা হয়নি সেক্ষেত্রে কিট হস্তান্তরটা কিভাবে হয়? এমন প্রশ্নে জাফরুল্লাহ বলেন, আমাদের ঔষধ প্রশাসনে এ ধরনের কিট সংক্লান্ত বিষয়ে কোনো অভিজ্ঞতা নেই। তাদের বুঝতে হবে এটা ঔষধ নয়, ঔষধ যে পদ্ধতিতে রেজিষ্টেশন করতে হয় এটা একি পদ্ধতিতে নয়। আমরা আমাদের সকল তথ্য কাল তাদেরকে দিচ্ছি, ওনারা তৃতীয় পক্ষের কোনো ল্যাবে পরীক্ষা করে দেখবেন। ফলাফল আসার পর অনুমোদন দেবেন।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের চেয়ারম্যান অধ্যাপক আলতাফুন্নোসা, গণস্বাস্থ্য ফার্মাসিটিক্যালসের প্রধান বিজ্ঞানী বিজন কুমার শীল, মোহাম্মদ রাঈদ জমির উদ্দিন ও ফিরোজ আহমেদ প্রমুখ।

এর আগে গত ১১ এপ্রিল এ কিটের নমুনা সরকারের ঔষধ প্রশাসন অধিপ্তর, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা, বিএসএমএমইউ, আইইডিসিআর, আইসিডিডিআর,বিসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিদের কাছে হস্তান্তরের কথা ছিল। কিন্তু তার আগের দিন কারখানায় যান্ত্রিক ও বৈদ্যুতিক জটিলতায় কিছু কিটে নষ্ট হয়ে যাওয়ায় ওই অনুষ্ঠান বাতিল করা হয়।