২ মেজরসহ ১০ ভারতীয় সেনাকে মুক্তি দিয়েছে চীন

25

লাদাখ সীমান্তে সংঘর্ষের পরে আটক ১০ ভারতীয় সেনাকে ফেরত দিয়েছে চীন। ভারত ও চীনের মধ্যে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখায় গত সোমবার রাতে এই সংঘর্ষ হয়েছিল। এতে ভারতের ২৩ সেনা নিহত হওয়ার পাশাপাশি ভারতীয় সেনার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে ৭৬ জন গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

সংঘর্ষের পর থেকেই উত্তেজনা নিরসনে দুই পক্ষের সামরিক পর্যায়ে দফায় দফায় বৈঠকের পরে ২ মেজর সহ ১০ বন্দী সেনার মুক্তি দিল চীন। বৃহস্পতিবার রাতে তাদেরকে মুক্তি দেয়া হয়। প্রেস ট্রাস্ট অব ইন্ডিয়াসহ অন্যান্য সংবাদমাধ্যম শুক্রবার এই তথ্য জানায়। এই বিষয়ে ভারতীয় সরকারের পক্ষ থেকে কোন মন্তব্য করা না হলেও সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে দেয়া বিবৃতিতে বলা হয়, নিশ্চিত হওয়া গেছে যে, সংঘর্ষের পরে কোন ভারতীয় সেনা নিখোঁজ হয়নি। সংবাদমাধ্যম দ্য হিন্দু জানিয়েছে, ভারতীয় সেনাবাহিনী এবং চীনের পিপলস লিবারেশন আর্মির মধ্যে মেজর জেনারেল পর্যায়ে আলোচনার পরে এই মুক্তির বিষয়ে একটি সমঝোতা হয়েছে।

লাদাখের গালোয়ান ভ্যালিতে ভারত-চীন সংঘর্ষে নিহতের ঘটনা গত ৪৫ বছরের এই প্রথম। ভারতের সেনা সূত্রে জানানো হয়েছে, ১৮ জন সেনা সদস্য গুরুতর আহত অবস্থায় চিকিৎসাধীন বিভিন্ন হাসপাতালে।

এ বিষয়ে চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই বলেছিলেন, ‘আঞ্চলিক সার্বভৌমত্ব রক্ষার জন্য চীনের দৃঢ় ইচ্ছাকে অবমূল্যায়ন করা ভারতের উচিত নয়।’ জবাবে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জয়শঙ্কর বলেছিলেন যে, চীন একটি ‘পূর্ব-পরিকল্পিত’ আক্রমণ শুরু করেছে যা বিশ্বের দুই জনবহুল দেশের সম্পর্কের উপর ‘গুরুতর প্রভাব ফেলবে’। সূত্র: এএফপি।