সুশান্তের মৃত্যু: মহেশ ভাট ও আলিয়ার বিরুদ্ধে মামলা

20

সুশান্তের মৃত্যুর পর থেকে বলিউডে যেন বইছে দমকা হাওয়া। স্বজনপ্রীতির বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠে আসছে ভক্তদের সব পোস্টে। নেটবাসী ও বিভিন্ন তারকাদের স্ট্যাটাস-পোস্টে বারবার উঠে আসছে ক্ষোভ ও অভিযোগ। সেই ক্ষোভের শিকার হয়েছেন বলিউডের নামকরা পরিচালক ও প্রযোজক মহেশ ভাটও।

সুশান্ত-ভক্তদের অভিযোগ, অভিনেতার বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তীর সঙ্গে ঘনিষ্ঠতা রয়েছে মহেশের। রিয়াকে নিজের হাতে বন্দী করতে তিনি সুশান্তের জীবনকে নষ্ট করেছেন। গভীর ষড়যন্ত্র করে নোংরা রাজনীতির খেলা খেলেছেন তিনি সুশান্তের সঙ্গে। যার প্রেক্ষিতেই অবসাদে ভুগে মৃত্যুকে বেছে নিলেন সুশান্ত। এ ব্যাপারে মুম্বাই পুলিশের তদন্ত এখনও জারি রয়েছে। শিগগিরই হয়তো নতুন কোনো তথ্য জানা যাবে।

যদিও বান্দ্রা থানায় এখনও ডাক পড়েনি মহেশ ভাটের। তবে সুশান্ত ভক্তদের একাংশ মন্তব্যবাণে বিদ্ধ করেছেন বৃদ্ধ এই পরিচালককে। অনেকে মহেশের সর্বশেষ ছবি ‘সড়ক ২’ বয়কটের ডাকও দিয়েছেন। আর তাই নিজের কামব্যাক ছবি নিয়ে বেশ ভালোই ঝামেলায় জড়ালেন তিনি।

এবার জানা গেল, ‘সড়ক ২’ নিয়ে আইনি ঝামেলারও মুখোমুখি তিনি। সদ্য মুক্তি পাওয়া ‘সড়ক ২’ ছবির পোস্টার হিন্দুধর্মের ভাবাবেগে আঘাত করেছে- এমন অভিযোগ এনে ভারতীয় দণ্ডবিধির ২৯৫-এর এ এবং ১২০’র বি ধারায় মামলা দায়ের হয়েছে মহেশ ভাটের বিরুদ্ধে। বাদ পড়েননি তার মেয়ে আলিয়াও। কারণ এ নায়িকা ছবিটির মূল চরিত্রে রয়েছেন।

সিকান্দারপুরের বাসিন্দা আচার্য চন্দ্র কিশোর পরাশর নামে জনৈক ব্যক্তি ‘ভাট ক্যাম্পের’ বিরুদ্ধে হিন্দুধর্মকে আঘাত করার অভিযোগ এনে মামলা দায়ের করেছেন বলে ভারতীয় গণমাধ্যমগুলো দাবি করেছে।

কেন পোস্টার নিয়ে আপত্তি উঠেছে? এ প্রসঙ্গে মামলা দায়েরকারী চন্দ্র কিশোরের আইনজীবী সোনু কুমার অভিযোগ সম্পর্কে জানিয়েছেন, ‘সড়ক ২’ সিনেমার নতুন পোস্টারে যেভাবে কৈলাস পর্বতকে তুলে ধরা হয়েছে, তা হিন্দু ধর্মের জন্য যথেষ্ট অপমানজনক। তার বক্তব্য, কৈলাসের মানস সরোবর হিন্দুদের পবিত্র একটি স্থান, যেখানে শিবশম্ভুর বাস বলে লোককথায় প্রচলিত রয়েছে। সেই পর্বতের ছবি নিয়ে কেন ঠাট্টা করা হলো? সেই প্রশ্ন তুলেই চন্দ্র কিশোর মামলা করেছেন।