আন্তর্জাতিক ফ্লাইটে নতুন করে কোনো নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়নি

18

আন্তর্জাতিক ফ্লাইটে নতুন করে কোনো নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়নি বলে জানিয়েছে সিভিল এভিয়েশন কর্তৃপক্ষ। সোমবার রাতে সংশোধিত এক সার্কুলারে জানানো হয়েছে, আগের নিষেধাজ্ঞা কার্যকর রয়েছে।

বেবিচকের ওয়েবসাইটে সোমবার এক সংশোধিত সার্কুলার জারি করা হয়। তাতে বলা হয়েছে, দেশের বিমানবন্দরগুলোতে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চলাচলে নিষেধাজ্ঞা থেকে আরও ৩ দেশকে বাদ দেয়া হয়েছে। দেশগুলো হল শ্রীলংকা, তুরস্ক ও মালয়েশিয়া। অর্থাৎ এই তিন দেশের ফ্লাইট ঢাকায় অবতরণ করতে পারবে।

বেবিচকের ফ্লাইট স্ট্যান্ডার্ড অ্যান্ড রেগুলেশন বিভাগের সদস্য গ্রুপ ক্যাপ্টেন এম জিয়াউল কবির স্বাক্ষরিত ওই সংশোধিত সার্কুলারে বলা হয়েছে, করোনার প্রাদুর্ভাব এড়াতে ৭ জুলাই (৬ জুলাই রাত ১২টা ১ মিনিট) থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত বাহরাইন, ভুটান, হংকং, ভারত, কুয়েত, মালদ্বীপ, নেপাল, ওমান, সউদী আরব, সিঙ্গাপুর, থাইল্যান্ডের আন্তর্জাতিক বাণিজ্যিক যাত্রী পরিবহনের (কমার্শিয়াল প্যাসেঞ্জার) ফ্লাইটগুলো বাংলাদেশের কোনো আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করতে পারবে না। তবে দেশগুলো থেকে কার্গো, বিশেষ ফ্লাইট ও এয়ার অ্যাম্বুলেন্স অবতরণ করতে পারবে।

ফ্লাইট চলাচলের বিষয়ে ১৮ জুন বেবিচকের জারি করা সর্বশেষ সার্কুলারে নিষেধাজ্ঞার আওতাভুক্ত দেশগুলোর মধ্যে মালয়েশিয়া, শ্রীলংকা ও তুরস্ক ছিল। সম্প্র্রতি নিষেধাজ্ঞা শিথিল করে এই দেশগুলোর এয়ারলাইন্সকে বাংলাদেশে ফ্লাইট পরিচালনার অনুমতি দেয়া হয়েছে।

আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চলাচলে গত ২১ মার্চ প্রথমবারের মতো নিষেধাজ্ঞা জারি করে বাংলাদেশ। বর্তমানে মালয়েশিয়া, শ্রীলংকা, তুরস্ক ছাড়াও সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাই, যুক্তরাজ্যের লন্ডন, কাতারের দোহা এবং চীন রুটে ফ্লাইট চলাচলে বেবিচকের অনুমতি রয়েছে।