বাংলাদেশ ব্যাংক গভর্নরের বয়সসীমা বাড়ল ২ বছর

31

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নর নিয়োগের বয়সসীমা দুই বছর বাড়িয়ে ৬৭ বছর করার বিল পাস হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার সংসদ অধিবেশনে অর্থমন্ত্রীর অনুপস্থিতিতে পরিকল্পনামন্ত্রী আবদুল মান্নান ‘বাংলাদেশ ব্যাংক (সংশোধন) অ্যাক্ট-২০২০’ নামে বিলটি পাসের প্রস্তাব করলে তা কণ্ঠভোটে পাস হয়।

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদ অধিবেশনে বিরোধী দল জাতীয় পার্টি ও বিএনপির সদস্যরা জনমত যাচাই-বাছাই কমিটিতে পাঠানোর প্রস্তাব করেন। ওই প্রস্তাবের ওপর আলোচনায় অংশ নেন জাতীয় পার্টির কাজী ফিরোজ রশীদ, মুজিবুল হক চুন্নু, রওশন আরা মান্নান ও পীর ফজলুর রহমান এবং বিএনপির মো. হারুনুর রশীদ।

এর আগে বুধবার এই বিলটি সংসদে উত্থাপন সংসদে উত্থাপন করা হয়। বিলে বলা হয়, জনস্বার্থে ১৯৭২ সালের বাংলাদেশ ব্যাংক অর্ডারের ১০ অনুচ্ছেদের ধারা-৫ এ উল্লেখিত বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নরের বয়সসীমা সম্পর্কিত আইন বাতিল করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

ওই বিল অনুযায়ী, বয়সসীমা ৬৫ বছর নির্ধারিত থাকায় আর্থিক ক্ষেত্রে প্রাসঙ্গিক দক্ষতা এবং অভিজ্ঞতা থাকা সত্ত্বেও গভর্নর পদে অনেক যোগ্য প্রার্থীকে বিবেচনা করা সম্ভব হয় না। এমনকি বয়স ৬৫ বছর পেরিয়ে যাওয়ার পরেও স্বতন্ত্রতার সঙ্গে এই পদে দায়িত্ব পালন করছেন এমন কাউকে পুনরায় নিয়োগ দেওয়া সম্ভব নয়।

পাস হওয়া বিলের উদ্দেশ্য ও কারণ সম্বলিত বিবৃতিতে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ ব্যাংক অর্ডার ১৯৭২ এর আর্টিকেল ১০ এর (৫) এর শর্তাংশ অনুযায়ী গভণর্রের কার্যকাল বা মেয়াদ ৪ বছর এবং তাকে পুন:নিয়োগ করা যাবে। তবে, ক্লজ (৫) এ উল্লেখ রয়েছে, ৬৫ বছর বয়স পূর্তির পর কোনো ব্যক্তি গভর্ণর পদে আসীন থাকতে পারবে না। দেশের অর্থনৈতিক ব্যবস্থাপনায় কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। দেশের রাজস্ব নীতির সঙ্গে সঙ্গতি রেখে কার্যকর মুদ্রনীতি প্রণয়ন, মুদ্রা সরবরাহ ও ব্যাংকের ঋণ সরবরাহ ও ব্যাংক ঋণ ব্যবস্থার নিয়ন্ত্রণ মুদ্রামান-সংরক্ষণ, বাণিজ্যিক ব্যাংকসমূহের সঙ্গে সমন্বয় সাধন প্রভৃতি বিষয়ে কেন্দ্রীয় ব্যাংক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। দেশের সুষ্ঠু আর্থিক ব্যবস্থাপনার স্বার্থে এই প্রতিষ্ঠানের কার্যকর ও উন্নতর ব্যবস্থাপনা নিশ্চিত করা প্রয়োজন। তাই ওই প্রতিষ্ঠান প্রধানের প্রাজ্ঞতা, বিচক্ষণতা কর্মদক্ষতা, অভিজ্ঞতা ও নেতৃত্ববাচক গুণাবলি প্রাতিষ্ঠানিক সাফল্যের মূল নিয়ামক শক্তি বিবেচনায় উক্ত পদে যোগ্য ও উপযুক্ত ব্যক্তিকে বিদ্যমান বয়সসীমা অপেক্ষা অধিকতর বয়সে নিয়োগের সুযোগ রাখা কিংবা প্রয়োজনে ওই পদে সমাসীন ব্যক্তিকে বিদ্যমান বয়সসীমা অতিক্রমণের ক্ষেত্রে প্রযোজ্যতা অনুসারে পুনর্নিয়োগ প্রদান কিংবা ওই ব্যক্তির নিয়োগের নিরবচ্ছিন্ন ধারাবাহিকতা বজায়ের ব্যবস্থা গ্রহণ করা সমীচীন। তাই বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর পদে সর্বোচ্চ বয়সসীমা ৬৫ বছরের স্থলে ৬৭ বছর নির্ধারণ করা প্রয়োজন।

গত ২ জুলাই ছিল ফজলে কবিরের শেষ কর্মদিবস। ৬৫ বছর পূর্ণ হওয়ায় তাকে পুনঃনিয়োগ দিতে পারেনি সরকার।