বিডি থাই ফুডের আইপিও আবেদন শুরু ২৩ ডিসেম্বর

30

বিডি থাই ফুড এন্ড বেভারেজ লিমিটেডের প্রাথমিক গণ প্রস্তাবের (আইপিও) আবেদনপত্র ও চাঁদার অর্থ জমা নেওয়া শুরু হবে আগামী ২৩ ডিসেম্বর। যা চলবে২৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত।
কোম্পানি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, ৩ অক্টোবর (রোববার ) বিএসইসির ৭৯৩ তম কমিশন সভায় এ অনুমোদন দেয়া হয়েছে। বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক (চলতি দায়িত্ব) ও মুখপাত্র মোহাম্মদ রেজাউল করিম স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানা গেছে।

এর প্রতিটি ১০ টাক ই মূল্যের ০১ কোটি ৫০ লক্ষ সাধারণ শেয়ার প্রাথমিক গণ প্রস্তাবের (আইপিও) মাধমে ইস্যু করার প্রস্তাব অনুমোদনের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। এই আইপিওর মাধ্যমে কোম্পানিটি ১৫ কোটি টাকা পুঁজি উত্তোলন করে যন্ত্রপাতি ও সরঞ্জাম ক্রয়, দালানকোঠা নির্মান, ভূমি উন্নয়ন এবং প্রাথমিক গণ প্রস্তাবের খরচ খাতে ব্যয় করবে। কোম্পানিটির ৩০শে জুন, ২০২০ তারিখে সমাপ্ত অর্থ বছরের নিরীক্ষিত আর্থিক বিবরণী অনুযায়ী পুন:মূলায়ন ছাড়া এনএভি ১২.৮২ টাকা এবং পুন:মূলায়নসহ এনএভি ১৪.২৩ এবং বিগত ০৫ (পাঁচ) বছরের ভারিত গড় হারে শোর প্রতি আয় (ইপিএস) ০:৬৩ টাকা।

উল্লেখ্য যে, কোম্পানিটির পরিশোধিত মূলধন ৬৬.৫০ কোটি টাবা। উক্ত টাকার শেয়ার ধারণকারীগণ এক্সচেঞ্জে এই কোম্পানির শেয়ার ক্রয়-বিক্রয়ের দিন থেকে পরবর্তী ০৩ (তিন) বছর পর্যন্ত কোন শেয়ার ক্রয়-বিক্রয় করতে পারবে না। কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস)
১:০০ টাকা বা তনুর্ধ্ব না হওয়া পর্যন্ত উদ্যোক্তা এবং পরিচালকগণ কোন প্রকার লভ্যাংশ গ্রহণ করতে পারবেন না।

কোম্পানির ইস্যু ম্যানেজারের দায়িত্ব রয়েছে ইউনিক্যাপ ইনভেস্টমেন্টস এবং বিএলআই ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড। এ প্রেক্ষিতে শুধুমাত্র বিডি থাই এর কর্মীদের মধ্যে ১৫% শেয়ার বন্টন এবং উক্ত শেয়ারের লক-ইন এর মেয়াদ ২ বছর নির্ধারণ করার বিষয়ে কমিশন সভায় সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্তির পূর্বে কোম্পানিটি কোন প্রকার লভ্যাংশ ঘোষণা, অনুমোদন বা বিতরণ করতে পারবে না।

৩০ জুন, ২০২০ সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৬১ পয়সা। একই সময়ে শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য (এনএভি) হয়েছে ১৪ টাকা ২৩ পয়সা।