বাংলাদেশ সফলে আসলেন স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড এশিয়া’র সিইও বেনজামিন হুং

142

চলতি সপ্তাহে রাজধানী ঢাকায় এসেছেন স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড এশিয়া’র সিইও বেনজামিন হুং। এটি ছিল বাংলাদেশে তার প্রথম আনুষ্ঠানিক সফর। করোনা বিরতির পর ব্যাংকের দ্বিতীয় আন্তর্জাতিক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা হিসেবে তিনি বাংলাদেশে এসেছেন।

দুই দিনের সফরের অংশ হিসেবে তিনি ঊর্ধ্বতন সরকারি কর্মকর্তা, অর্থনীতিবিদ, নিয়ন্ত্রক, ব্যাংকের ক্লায়েন্টসহ অন্যান্য প্রধান স্টেকহোল্ডারদের সাথে সাক্ষাৎ করেন। বেনজামিনের এই সফরের মূল উদ্দেশ্য, বিশ্বের দ্রুততম ক্রমবর্ধমান বাজার হিসেবে এশিয়া’র স্থিতিস্থাপকতা, গতিশীলতা এবং প্রবৃদ্ধিতে বাংলাদেশ কী অবদান রাখছে সে সম্পর্কে জানা। ব্যাংক কীভাবে ডিজিটাল ইনোভেশন পরিচালনা করছে, সাসটেইনেবিলিটিকে ত্বরান্বিত করছে এবং দেশব্যাপি সার্বিক সমৃদ্ধি ও অগ্রগতিতে ভূমিকা রাখছে ইত্যাদি ব্যাপারে বিশেষ নজর দিয়েছেন তিনি।

বেনজামিন বাংলাদেশে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ডের কমিউনিটি এঙ্গেজমেন্ট ভিত্তিক উদ্যোগগুলো স্বচক্ষে দেখতে ‘ইস্পাহানি ইসলামিয়া আই ইনস্টিটিউট ও হাসপাতাল’ (ইসলামিয়া) পরিদর্শন করেন। ইসলামিয়া ‘সিয়িং ইজ বিলিভিং’ (এসআইবি)-এর প্রতিষ্ঠাতা সংস্থা, যারা ২০০৩ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত (১৫ বছর) স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ডের গ্লোবাল ফ্ল্যাগশিপ কমিউনিটি-ভিত্তিক উদ্যোগগুলোর মধ্যে অন্যতম।

বেনজামিন-এর সফর প্রসঙ্গে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড বাংলাদেশ-এর সিইও নাসের এজাজ বিজয় বলেন, “বাংলাদেশের স্থিতিস্থাপকতা আমাদেরকে বারবার বাঁধা পেরিয়ে সামনের দিকে এগিয়ে চলতে সাহায্য করেছে এবং আগামীতেও সেই ধারা অব্যাহত থাকবে। আমরা সর্বদাই দৃঢ় সংযোগ স্থাপনে এবং দেশের অপার সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। একইসাথে আমরা স্থানীয়, আঞ্চলিক ও বৈশ্বিকভাবে বৃহত্তর সহযোগিতার পথ প্রশস্থে আগ্রহী। বেন-এর এই প্রথম আনুষ্ঠানিক সফর এটি প্রমাণ করে যে, বাংলাদেশে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ডে কার্যক্রম নিয়ে সিনিয়র ম্যানেজমেন্ট সন্তুষ্ট ও আস্থাশীল।”

বেনজামিন হুং গত বছরর জানুয়ারিতে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড এশিয়া’র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে নিযুক্ত হন। তিনি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা দলের একজন সদস্য এবং স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক (চায়না) লিমিটেড-এর চেয়ারম্যান। ১৯৯২ সালে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ডে যোগদানের পর থেকে এ পর্যন্ত তিনি কর্পোরেট, কমার্শিয়াল এবং রিটেইল ব্যাংকিং বিভাগে বেশ কয়েকটি সিনিয়র ম্যানেজমেন্ট পদে দায়িত্ব পালন করেছেন। স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড এশিয়া’র সিইও নিযুক্ত হওয়ার আগে তিনি চীন ও উত্তর এশিয়ার রিজনাল সিইও এবং রিটেইল ব্যাংকিং ও ওয়েলথ ম্যানেজমেন্ট গ্রুপের সিইও পদে ছিলেন। বেনজামিন হুং বর্তমানে হংকং-এ অবস্থান করছেন এবং যুক্তরাজ্য ও কানাডা উভয় দেশে তার আন্তর্জাতিক ব্যাংকিং খাতে কর্ম অভিজ্ঞতা রয়েছে। তিনি হংকং-এর সিইও-এর ইনোভেশন ও স্ট্র্যাটেজিক ডেভেলপমেন্ট-এর উপদেষ্টা কাউন্সিল, এক্সচেঞ্জ ফান্ড উপদেষ্টা কমিটি, হংকং এক্সচেঞ্জ ও ক্লিয়ারিং লিমিটেডের পরিচালনা পরিষদের সদস্য এবং হংকং জেনারেল চেম্বার অব কমার্সের সাধারণ কমিটির একজন সদস্য। তিনি ইতোপূর্বে হংকং অ্যাসোসিয়েশন অব
ব্যাংক-এর চেয়ারম্যান, আর্থিক পরিষেবা উন্নয়ন কাউন্সিলের সদস্য, হংকং বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ ও হংকং হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বোর্ড সদস্য এবং হংকং বিশ্ববিদ্যালয়ের কাউন্সিল সদস্য হিসেবেও দায়িত্বরত ছিলেন।

দীর্ঘ ১১৭ বছরেরও বেশি সময় ধরে বাংলাদেশে নিরবচ্ছিন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করা স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংকই দেশের একমাত্র বহুজাতিক ব্যাংক। দেশের অগ্রগতির দীর্ঘকালীন অংশীদার হিসেবে সম্পদ, কর্মসংস্থান সৃষ্টি, প্রবৃদ্ধি এবং বৃহত্তর সাফল্য অর্জনে ব্যক্তি এবং বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানকে ব্যাংকিং পরিষেবা প্রদান করেছে ব্যাংকটি। টেকসই ও সমতার আদর্শকে কেন্দ্রে রেখে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক ও সামাজিক উন্নয়নের জন্য ব্যাংকটি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। দেশের সমৃদ্ধির চাকা সচল রাখার অংশ হিসেবে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ২০২১ সালে ৩১টি আন্তর্জাতিক অ্যাওয়ার্ড অর্জন করেছে।